খেলা চলাকালীন অস্ট্রেলিয়া আরো যে কয়েকটা শর্ত দিতে পারে

ম্যাচ শুরুর আগে বাংলাদেশি ক্রিকেটার ও মাঠ সংশ্লিষ্টদের ব্যাপারে যেসব শর্ত দিয়েছে, সে অনুসারে ম্যাচ চলাকালীন এরকম কিছু শর্ত দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড-

১. অস্ট্রেলিয়া দল ব্যাটিং করা অবস্থায় বাংলাদেশের কোন ফিল্ডার ত্রিশ গজের ভিতরে থাকতে পারবেনা

২. বোলার পিচের কাছ থেকে বল করতে পারবেনা ত্রিশ গজ দূরে থেকেই করতে হবে বল

৩. উইকেট কিপারকে দাড়াতে হবে মাঠের শেষ প্রান্তে, এবং ফিল্ডার বল কুড়িয়ে কিপারকে দিতে হলেও কিপার পিচের ত্রিশ গজের ভিতর আসতে পারবেনা, ফিল্ডার স্ট্যাম্প বরাবর বল থ্রো করলেও কিপার সামনে থেকে এসে রান আউট করতে পারবেনা, এমনকি বলার বল করার সময় স্ট্যাম্পিং ও করা যাবেনা।

৪. অস্ট্রেলিয়া দল ব্যাটিং করার সময় বল যদি কোন ব্যাটসম্যানের শরীরে স্পর্শ করে ওই বল দিয়ে ওইদিন আর ম্যাচ খেলা হবেনা সাথেসাথে বল পরিবর্তন করতে হবে।

৫. ত্রিশ গজের ভিতর ব্যাটসম্যান দৌড়িয়ে যতখুশি তত রান নিতে পারবে, যেহেতু ফিল্ডার বোলার ও উইকেট কিপার ত্রিশ গজের ভিতর প্রবেশ করতে পারবেনা সেহেতু ব্যাটসম্যান রা চাইলে ইচ্ছামত রান নিবে দশ বিশ ত্রিশ চল্লিশ অথবা পঞ্চাশ, ব্যাটসম্যান হাপিয়ে উঠার আগ পর্যন্ত রান নিবেই, ফিল্ডিং দল তাকিয়ে দেখবে দূর থেকে

৬. কোন ব্যাটসম্যান উচু করে বল মারলে সেটা ত্রিশ গজের ভিতরে থাকলে কোন ফিল্ডার সেই ক্যাচ ধরার চেষ্টা করতে পারবেনা।

৭. মাঠে আম্পায়ার থাকবেনা, তারা মাঠের বাহিরে থেকে ম্যাচ পরিচালনা করবে।

৮. প্রতি বলেই, ফিল্ডার বোলার উইকেট কিপার, এবং ক্রিকেট বলটিকে স্যানিটাইজার দিয়ে জীবানু মুক্ত করতে হবে।

৯. অস্ট্রেলিয়ার কোন ব্যাটসম্যান আউট হয়ে গেলে সে যখন প্যাভিলিয়নের দিকে হাটা শুরু করবে, বাংলাদেশের ফিল্ডাররা তার আগেই দৌড়ে মাঠের বাহিরে যেতে হবে যাতে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানের থেকে দুরত্ব নিশ্চিত হয়।

১০. অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানের উইকেট পাওয়ার পর কোন বোলার, উল্লাস করতে পারবেনা, ফিল্ডাররাও এক জায়গাত সমবেত হওয়া যাবেনা।

১১. বাংলাদেশ দল ব্যাটিং করতে পারবেনা, অস্ট্রেলিয়াই দুই ইনিংস জুড়ে ব্যাট করতে হবে।

১২. অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে যত রান করবে, অস্ট্রেলিয়া পরের ইনিংসে তত রান চেজ করতে পারলে উইকেটের ব্যবধানে জিতবে, যদি চেজ না করতে পারে তাহলে অস্ট্রেলিয়া রানের ব্যবধানে জিতবে।

১৩. খেলা শেষে বাংলাদেশ দলের সবাইকে পরের ম্যাচ শুরু হওয়ার আগ পর্যন্ত মাঠেই থাকতে হবে, টিম হোটেলে যেতে পারবেনা।

১৪. খেলা শেষে দুই দল হ্যান্ডশেক করবেনা এমনকি উভয় দল উভয় দলের থেকে পর্যাপ্ত ( মিনিমাম ত্রিশ গজ) দুরত্ব? মেইনটেইন করবে। প্রয়োজনে ফোন দিয়ে অস্ট্রেলিয়া দলকে শুভেচ্ছা জানানো যাবে।

১৫. ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরনী কোন আয়োজন থাকবেনা, অস্ট্রেলিয়া দল হোটেলে গিয়ে নিজেরাই নিজেদেরকে প্রাইজ দিবে।

লেখাঃ সুমন মাহমুদ

ছবি: ফেসবুক থেকে নেয়া

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *