BBA in Agribusiness- এগ্রিবিজনেস ম্যানেজম্যান্ট

এগ্রিবিজনেস কি?

কৃষি পণ্য নিয়ে যে ব্যবসায় সেটি এগ্রিবিজনেস। কৃষির উপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ প্রায় সকল ব্যবসায় চালু রয়েছে।
যেমন- প্রান / এ সি আই এগ্রিবিজনেস সারা পৃথিবীতে এগ্রিবিজনেস এর ব্রান্ড হিসাবে বাংলাদেশকে পরিচিতি দিয়েছে ।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এর BBA এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় BBA এর মধ্যে কোন পার্থক্য আছে কি?

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এর BBA এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় BBA প্রায় একই রকম। পার্থক্য এইটুকু যে, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি সম্পর্কিত বিষয়গুলো পড়ান হয় যাতে একজন গ্রাজুয়েট কৃষি সেক্টরে কাজ করার অগ্রাধিকার পায়।

 

কি পড়ানো হয়?

BBA in Agribusiness প্রোগ্রামে মুলত যে বিষয়গুলো পড়ানো হয় সেগুলো হলো:-

মার্কেটিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইনান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং, অ্যাকাউন্টিং কোর্স গুলো প্রধান।

বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এর BBA এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় BBA মতো ফাইনাল ইয়ারে মার্কেটিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইনান্স মেজর করতে পারে।

ফলে একজন বিজনেস গ্রাজুয়েট হিসাবে দক্ষতার স্বাক্ষর রাখতে পারে এবং শেষ সেমিস্টার একজন শিক্ষার্থী ইন্টার্নশিপ করে থাকে যার মাধ্যমে অনেক প্রতিষ্ঠান জব অফার করে থাকে।

 

বিদেশে উচ্চ শিক্ষা

• Lowa State University,
• Ohio State University,
• Purdue University,
• University of Arkansas, University of Georgia University of Manitova
• University of Saskatchewan
• University of Queensland
• Rajendra Agricultural University
• Kerala Agricultural University
• Punjab Agricultural University
• Asam Agricultural University

আর ও অনেক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যেখানে পড়ার সুযোগ রয়েছে।কৃষি অর্থনীতির গ্রাজুয়েটদের জন্য বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রয়েছে উচ্চশিক্ষার বিশাল সুযোগ।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জাপান, জার্মান, অস্ট্রেলিয়া, চীন, মালয়েশিয়া ও ভারতে প্রতিবছর বৃত্তি নিয়ে পড়তে যাচ্ছেন এদেশের গ্রাজুয়েটরা।

   চাকরির বাজার

বিজনেস গ্রাজুয়েটরা দেশে এবং বিদেশে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান, পরামর্শদানকারি প্রতিস্থান, সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক, এগ্রিবিজনেস ফার্ম, বহুজাতিক কোম্পানি ইত্যাদিতে সাফল্যের সাথে শীর্ষ অবস্থানে অধিষ্ঠিত রয়েছে।

 

ব্যাংক

সকল সরকারি, বেসরকারি, বিদেশি ও
বিশেষায়িতবাণিজ্যিক ব্যাংকে আবেদনের যোগ্যতা রাখে।
সাধারনত সকল ব্যাংকে BBAসহ MBAগ্রাজুয়েটরা বেশি অগ্রাধিকার পায় ।

কোম্পানি

প্রায় সকল সরকারি, বেসরকারি, বিদেশি ও বহুজাতিক কোম্পানিতে বিজনেস গ্রাজুয়েটদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে ।

সকল সরকারি, বেসরকারি, বিদেশি ও বহুজাতিক কোম্পানিতে মার্কেটিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইনান্স, মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা আলাদা বিভাগ রয়েছে । বিজনেস গ্রাজুয়েটরা এসকল বিভাগে রয়েছে কাজ করার অফুরন্ত সুযোগ ।

কনসালটেন্সি ফার্ম

এগ্রিবিজনেস গ্রাজুয়েটরা খুব সহজেই চাকুরী পেতে পারে এ সেক্টরে।

বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন

•বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের আওতাভুক্ত সরকারি সকল প্রথম শ্রেণীর চাকরিতে আবেদন করতে পারে।

•বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনে শিক্ষা ক্যাডারে চাকরি

শিক্ষকতা

•বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এর BBA এবং MBA -তে মার্কেটিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইনান্স মেজর থাকায় যার ফলে একজন বিজনেস গ্রাজুয়েট হিসাবে বিভিন্ন সরকারি কলেজে প্রভাষক হিসেবে চাকরিতে যোগদান করতে পারবে।

•বর্তমানে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এর BBA এবং MBA -তে মার্কেটিং, ম্যানেজমেন্ট, ফাইনান্স মেজর থাকায় যার ফলে একজন বিজনেস গ্রাজুয়েট হিসাবে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতায় চাকরিতে যোগদান করতে পারবে।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের টেকনিক্যাল ক্যাডারভুক্তকরন ও কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের টেকনিক্যাল ক্যাডারভুক্তকরন ও কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠানে এগ্রিবিজনেস বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।

সাম্প্রতিক সময়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এগ্রিবিজনেসকে কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের টেকনিক্যাল ক্যাডারভুক্তকরনের জন্য সুপারিশ করেছে ।

উদ্যোক্তা হবার সুযোগ

বিজনেস গ্রাজুয়েটগণ প্রয়োজনীয় মূলধন সংগ্রহ করে সহজে উদ্যোক্তা হয়ে হাজারো মানুষের চাকুরী দেওয়ার ক্ষমতা রাখে।

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল, মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশন, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডে এ বিষয়ের গ্রাজুয়েটরা সুনামের সঙ্গে চাকরি করছেন।

এনজিও-আইএনজিও

এছাড়া রয়েছে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক এনজিওতে (বেসরকারি সংস্থা) চাকরির সুযোগ।

কোলপাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি, ইলেকট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি, বিভিন্ন সার ও চিনি কারখানা, খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, এশিয়া ফাউন্ডেশন, ড্যানিডা, কেয়ার, ব্র্যাক, ওয়ার্ল্ড ভিশন, আশা, প্রশিকা, এসিআই, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোতে কৃষি অর্থনীতি গ্রাজুয়েটদের চাকরির সুযোগ দিন দিন বাড়ছে।

বেসরকারি বীজ কোম্পানি, পেস্টিসাইড ও ইনসেক্টিসাইড কোম্পানিগুলোতেও কৃষিবিদদের কাজের ক্ষেত্র রয়েছে।

এসিআই, ব্র্যাক, স্কয়ার, অ্যাগ্রোবেট, প্রাণ, লালতীর, ন্যাশনাল অ্যাগ্রোকেয়ার, কৃষিবিদ গ্রুপ, অ্যাকশন এইডের মতো বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানেও উচ্চ বেতনে চাকরির সুযোগ রয়েছে শুধু কৃষির গ্রাজুয়েটদের।।

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *