স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার জন্য আন্দোলনে নামতে যাচ্ছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা

আগামী ১৩ই সেপ্টেম্বর ঢাকা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সকাল ১০ টায় স্বাস্থ্যবিধি  মেনে বিশ্ববিদ্যালয়  খুলে দেয়ার জন্য মানববন্ধনের আয়োজন করতে যাচ্ছে একদল শিক্ষার্থী।

সারাদেশে সকল কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাভাবিক ভাবেই চলছে। খোলা হয়েছে কল কারখানা, যানবাহন, পর্যটক কেন্দ্র, পার্ক, অফিস-আদালত সকল কিছুই।

করোনা পরিস্থিতিও অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কিন্তু তবুও স্থবির হয়ে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম।

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় এর লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী আল-মোজাহিদ ইমু (অর্ক) বলেন,

দেশের অন্য সব কিছুই আগের মতোই চলছে, সেখানে বলা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতেই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। এর চেয়ে হাস্যকর যুক্তি আর হয়না। বিষয়টা এমন সারা দেহে কাপড় নাই, মাথায় টুপি পড়ে হুজুর সাজার চেষ্টা। তাই আমরা চাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় যেনো খুলে দেওয়া হয়।

 

কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করার পরিকল্পনা করা হতে পারে সে বিষয়ে তিনি জানান,

বাইরের কিছু দেশে একটা সিস্টেম চলছে, সেটা হলো হাইব্রিড পদ্ধতি। কিছু স্টুডেন্ট ক্লাসেই ক্লাস করছে আর কিছু স্টুডেন্ট ঘরে লাইভ ক্লাস করছে। এই সিস্টেম টা কিন্তু কার্যকর করা কঠিন হবেনা। এটি একটি ভালো পদ্ধতি হতে পারে।”

অনেক প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস হলেও ল্যাব না হওয়াতে প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে সেসব ক্লাসের কার্যক্রম।তাছাড়া প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট এর অসুবিধার কারণে অনলাইনের ক্লাস করতে পারছেন না।

ফলে রেজাল্ট খারাপ করার আশংকায় মানসিকভাবে হতাশায় ভুগছেন তারা।

তাছাড়া অনেক দেশেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ধীরে ধীরে খুলে দেয়া হচ্ছে।

অপরদিকে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় দীর্ঘ সেশনজট এর আশংকা করছেন শিক্ষার্থীরা। এতে ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তায় দিন পার করছেন হাজারো শিক্ষার্থী।

তাই এমতবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার দাবি নিয়ে আন্দোলনে যেতে চাচ্ছেন সাধারণ শিক্ষার্থীদের একাংশ।

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *