পুলিশের সহায়তায় টিউশনির টাকা পেলেন রাবি ছাত্রী

পুলিশ। ফাইল ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক ছাত্রীর টিউশনির টাকা পরিশোধে টালবাহানা করছিলেন শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা। অবশেষে পুলিশের মধ্যস্থতায় তিনি তার পাওনা বুঝে পেয়েছেন। রোববার বাংলাদেশ পুলিশের এআইজি (মি‌ডিয়া এন্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স) মো. সো‌হেল রানার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে জানানো হয়, রাজশাহী নগরীর মতিহার এলাকায় এক ব্যক্তির সন্তানকে পড়ানোর জন্য মৌখিক চুক্তি হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রীর। চুক্তি অনুযায়ী পড়ানো শেষ হলে ওই ছাত্রী তার পাওনা টাকা চাইতে গেলে সেই পরিবারটি তার প্রাপ্য টাকার অর্ধেকেরও কম নিতে বলে। মেয়েটি তা নিতে অস্বীকার করেন।

তিনি তার সম্পূর্ণ পাওনা দাবি করলেও তা দেয়া হয়নি। এক পর্যায়ে পাওনা না নিয়েই হোস্টেলে ফিরে আসতে বাধ্য হন তিনি। স্থানীয় পর্যায়ে প্রভাবশালী হওয়ায় ওই পরিবারের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো উচ্চবাচ্য করার সাহসও পাননি মেয়েটি।

পরবর্তীতে গত ২৪ ফেব্রুয়া‌রি তিনি বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত ‘বাংলাদেশ পুলিশ অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে’ ইনবক্সে সহায়তা চেয়ে মেসেজ পাঠান।

এই বার্তা পেয়ে মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নিতে নির্দেশনা দেয়। এর ফলে উভয় পক্ষের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে বিষয়টি সমাধান করা হয়।

এতে আরও বলা হয়, আমা‌দের ছাত্র-ছাত্রী‌দের অ‌নে‌কেই টিউশ‌নি ক‌রে নি‌জে‌দের পড়া‌লেখার খরচ চা‌লি‌য়ে থা‌কে।

তাই তা‌দের প্র‌তি সহ‌যো‌গিতার ম‌নোভাব প্রদর্শন করা উ‌চিত। তা‌দের ‌যে কো‌নো সৎচেষ্টা ও উদ্যম‌কে সবারই সমর্থন জানা‌নো উ‌চিত ব‌লে ম‌নে ক‌রে বাংলা‌দেশ পু‌লিশ।

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *