ঢাকাবাসীর সমস্যা নিয়ে খুবির আয়োজনে ১২ দিনব্যাপী শিল্প প্রদর্শনী

ঢাকাবাসীর সমস্যা নিয়ে নগর গবেষণা ও শিল্প কর্মের সম্মিলন ঘটিয়ে ‘শৈল্পিক দৃষ্টিতে ঢাকার সমস্যা’নামক এক ভিন্নধর্মী প্রদর্শনী শুরু হতে যাচ্ছে। রাজধানীর ‘আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ’ এর ধানমন্ডি শাখায় শুক্রবার (২৭ মে) থেকে ১২ দিনব্যাপী এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

পথশিশুদের কথা, বস্তির স্বাস্থ্য ও বাসস্থানের গল্প, হারিয়ে যাওয়া পাড়া-মহল্লার কথা, অনিরাপদ-নিরাপদ শহরের পাঁচালী ও শহরতলির দূরাবস্থার কথন এর মতো বিষয়গুলো প্রদর্শনীর মূল আকর্ষণ। ১০ জন শিল্পী এবং ৩০ জন শিক্ষার্থীর আঁকা চিত্রকর্মগুলির মাধ্যমে ঢাকার নগর সমস্যা নিয়ে সবাইকে ভাবতে উদ্বুদ্ধ করতেই মূলত এ আয়োজন।

প্রদর্শনীটির কনসেপ্ট পরিকল্পনাকারি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক তানজিল সওগাত জানান, আমাদের প্রদর্শনীটি গল্পের মতো করে সাজিয়েছি, যার শুরু ব্যক্তি সমস্যা কেন্দ্রিক এবং শেষ হয়েছে দার্শনিক প্রশ্ন দিয়ে।

প্রদর্শনীতে খ্যাতনামা ও নবীন শিল্পীরা ৪০টির বেশি শিল্পকর্ম প্রদর্শন করবেন। এছাড়াও বাচ্চাদের ৩০টি কাজ প্রদর্শিত হবে এই প্রদর্শনীতে।

শিল্পীদের মধ্যে কাজী গিয়াসউদ্দিন, শহিদ কবির, ঢালী আল মামুন, তৈয়বা বেগম লিপি এবং মাহবুবুর রহমান অংশ নিয়েছেন। অন্যদিকে, নবীন শিল্পীদের মধ্যে আছেন- সুনন্দা রানি বর্মন, মাহামুদুল হাসান, মো. মোজাহিদুর রহমান সরকার, কুন্তল বারী এবং এস এম শাহ্ আনিসুজ্জামান ফারুকি।

প্রদর্শনী সজ্জা সম্পর্কে বলতে গিয়ে প্রদর্শনীর কিউরেটর সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রদর্শনীটির আবহ এমনভাবে তৈরী করা হয়েছে যা মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে যাবে এবং ঢাকাকে নিয়ে তারা নতুন করে ভাববে।

প্রদর্শনীটি যুক্তরাজ্য সরকারের অর্থায়নে সেন্টার ফর সাসটেইনেবল, হেলদি অ্যান্ড লার্নিং সিটিজ অ্যান্ড নেইবারহুডস (এসএইচএলসি) আন্তর্জাতিক কনসোর্টিয়ামের কার্যক্রমের একটি অংশ।

এসএইচএলসি একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা উদ্যোগ, যেখানে ৮টি দেশের ৯টি গবেষণা প্রতিষ্ঠান এশিয়া এবং আফ্রিকার ১৪টি শহরের নগরায়ণ নিয়ে কাজ করছে। বাংলাদেশে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এরই অংশ হিসেবে ঢাকার নগর সমস্যা নিয়ে কাজ করছে।

প্রদর্শনীর আয়োজক গবেষণা প্রকল্পের নেতৃত্ব দেয়া খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক ড. শিল্পি রায় মনে করেন প্রদর্শনীটি ঢাকার টেকসই নগরায়ন নিয়ে ভাবনাকে উজ্জীবিত করবে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে আমরা টেকসই নগরায়নের বিষয়ে নাগরিক ও নীতি নির্ধারকদেরকে সচেতনতার বার্তা পৌঁছাতে চাই।

ভিন্নধর্মী এই প্রদর্শনীটির দর্শকরা রাজধানী ঢাকাকে নিয়ে নতুন করে ভাববার এবং ঢাকার টেকসই নগরায়ন নিয়ে অন্যকে ভাবাবার সুযোগ পাবেন বলে আয়োজকরা আশা করছেন। প্রদর্শনীটি আগামী ৭ জুন পর্যন্ত চলবে।