হল খোলার দাবিতে দ্বিতীয় দিনেও অবস্থান কর্মসূচি ইবি শিক্ষার্থীদের, হল না খুললে আন্দোলন

হল খোলার দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকাল ১১টায় ক্যাম্পাসের ডায়না চত্বর থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু হয়।

বিক্ষোভ মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে হলগুলোর সামনে গিয়ে শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়েছেন। এ সময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শেখ রাসেল হলে তারা অবস্থান নেন। দুপুর ১২টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত তারা হলের সামনে অবস্থান নেন। এ সময় কিছু শিক্ষার্থী হলের তালা ভাঙার চেষ্টা করেন।

হল খুলে না দেওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন তারা। শেষ খবর পাওয়া পর‌্যন্ত শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

এর আগে একই দাবিতে রবিবার সকালে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ভিসি ভবনের সামনে অবস্থান নেয়।

এদিকে আগামী ১৭ মে হল ও ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সরকার। এ সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে সরকারের সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ‘প্রশাসনের প্রহসন মানি না মানব না’, ‘লাথি মার ভাঙরে তালা, খুলে ফেল হলের তালা’, ‘আমার হল বন্ধ কেন জবাব চাই জবাব চাই’ সম্বলিত শ্লোগান দিতে থাকেন।

অবস্থানকালে শিক্ষার্থীরা বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত- বিচার মানি কিন্তু তালগাছ আমার। আমরা এই সিদ্ধান্তকে কোনোভাবেই মানতে পারছি না। সরকারের সিদ্ধান্তকে পূনর্বিবেচনার উদাত্ত আহ্বান জানাই। অবিলম্বে হল খুলে দিতে হবে। তা না হলে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

তারা আরও বলেন, আমরা আগামীকাল মঙ্গলবার ১১টায় সাংবাদিক সম্মেলন করে আমাদের পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম বলেন, আগামীকাল (মঙ্গলবার) ডিনদের নিয়ে জরুরি মিটিং ডাকা হয়েছে। এতে পরীক্ষার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। হল খোলার ব্যাপারে সরকারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *